follow us at instagram
Wednesday, September 23, 2020

জীবনকে নতুন করে দেখতে, ভাবতে সাহায্য করবে যেসব সিনেমা

লকডাউনে ঘরে বসেই উপভোগ করতে পারেন দারুণ কিছু সিনেমা।
https://taramonbd.com/wp-content/uploads/2019/09/1080x720-blank-movies-2.jpg

সিনেমা দেখতে কে না ভালবাসে! করোনা ভাইরাস সংক্রমণ এড়ানোর এই লকডাউন পরিস্থিতি সামাল দিতে ঘর বন্দী মানুষদের সময় কাটানো ও বিনোদনের প্রধান মাধ্যমই হল এখন চলচিত্র দেখা। যেসব ছবি মানুষ দেখত না বা দেখেনি এর আগে সেগুলোও দেখে ফেলছে সবাই এখন। 

বয়স, পরিস্থিতি ও বিনোদনের কথা মাথায় রেখে ছবির কয়েকটি তালিকা আমরা করেছি যা লকডাউনের সময় একই সাথে দিতে পারে আনন্দ এবং খুলে দিতে পারে চিন্তার দরজা। এছাড়া বিশ্বের বিভিন্ন নামী খবরের কাগজ ও ম্যাগাজিন যেমন ফোর্বস, ভোগ, গার্ডিয়ান, টেলিগ্রাফসহ, হারপার বাজার, নিউইয়র্ক টাইমস এমনকি অ্যাকাডেমি পর্যন্ত মুভি সাজেশন দিচ্ছে এই সময়ে দেখার জন্য। তবে ক্যাটাগরি বিবেচনা করেও ছবি দেখা উচিৎ। কারণ সবসময় সব ধরণের ছবি দেখতে ভাল লাগেনা। কখনও বা থ্রিলার, কখনও কমেডি কিংবা কখনও শুধুই ড্রামা দেখতে ভাল লাগে। তাই আমরা তালিকা করেছি শ্রেণিবিভাগ করে। 

মহামারী নিয়ে ছবি

এখন চলছে বৈশ্বিক মহামারী। তাই যেকোনো মহামারী নিয়ে হওয়া ছবি নিয়েই সবার আগ্রহ থাকবে সেটাই স্বাভাবিক। মহামারী নিয়ে বেশ কিছু ভাল ছবি হয়েছে। তাঁর মধ্যে যেগুলো দেখা যায় এরকম কয়েকটি হচ্ছে:

১। কন্টাজিয়ন (Contagion)

২। ফ্লু (Flue)

৩। প্যান্ডেমিক (Pandemic)

৪। কোয়ারেন্টাইন ২ – টার্মিনাল (Quaraintaine 2 -Terminal)

৫। ডেড সি (Dead Sea)

৬। দ্যা লকডাউনঃ ওয়ান মান্থ ইন উহান (Documentary – The Lockdown: One Month in Wuhan)

৭। গণশত্রু (Gana Shatru)

৮। ট্রেইন টু বুশান (Train to Bushan)

৯। দ্যা আউটব্রেক (The Outbreak, ১৯৯৫)

১০। ব্ল্যাক ডেথ (Black Death, ২০১০)

টিকে থাকার লড়াই বা অ্যাডভেঞ্চার কেন্দ্রিক ছবি

এই সময়ে সবচেয়ে উপকার হবে কি ধরণের সিনেমা দেখলে, এই প্রশ্নের  উত্তর হল, এখন সময় অ্যাডভেঞ্চার ও টিকে থাকার লড়াই কেন্দ্রিক ছবি দেখার। কেননা এখন বিশ্বজুড়ে চলছে কঠিন পরিস্থিতি। সবাই আছে ‘সার্ভাইভাল মোড’ এ। নিকট বা দূর ভবিষ্যতে মানব জাতির জন্য কি অপেক্ষা করছে খোদ বিজ্ঞানীরাও নিশ্চয়তা দিয়ে বলতে পারছেন না। এমন একটি অনিশ্চিত সময়ে প্রয়োজন যেমন স্থির বুদ্ধি থাকা তেমনি নিজের ফিটনেস ও বুদ্ধিমত্তাকেও সুস্থ রাখতে হবে যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবেলা এবং মানিয়ে নেবার জন্য। এধরণের ছবি দেখলে সেই প্রেরণা পাওয়া যায় বৈকি! তাই দেখে নেয়া যাক তালিকাটি:

১। ১২৭ আওয়ারস (127 Hours)

২। ট্র্যাপ (Trap , হিন্দি ২০১৭)

৩। ইন টু দ্যা ওয়াইল্ড (In to the wild)

৪। ওয়াইল্ড (Wild)

৫। এভারেস্ট (Everest)

৬। আলফা (Alpha, ২০১৮)

৭। দ্যা পিয়ানিস্ট (The Pianist)

৮। এডি (Edie)

৯। দ্যা ক্লাইম্ব (The Climb)

১০। ক্যাস্ট অ্যাওয়ে (Cast Away)

অনুপ্রেরণামূলক ও জীবন ঘনিষ্ঠ ছবি

শশাঙ্ক রিডেম্পশন, ফরেস্ট গাম্পের মত অনুপ্রেরণামূল্ক ছবি হয়তো সবাই দেখে ফেলেছে। তাই একটু ভিন্নধর্মী অনুপ্রেরণামূলক এবং গভীরভাবে জীবনঘনিষ্ট ছবি দেখা যাক।

১। ১৯১৭ (1917,২০১৯) 

২। ম্যারেজ স্টোরি ( Marriage Story ২০১৯)

৩। লস্ট ইন ট্রান্সলেশন (Lost in Translation)

৪। লায়ন (Lion,২০১৭)

৫। রমা (Roma, ২০১৭)

৬। পিংক (Pink হিন্দি ২০১৬)

৭। শপলিফটারস (Shoplifters)

৮। অপু ট্রিলজি (Apu Trilogy – Pather Pachali, Aparajito, Apur Shanshar)

৯। আ সেপারেশন (A Seperation)

১০। লাইফ ইজ বিউটিফুল (Life is Beautiful)

ঐতিহাসিক/ সত্য ঘটনার উপর নির্মিত ছবি

এই ছবিগুলোর কোন কোনটি নির্মিত হয়েছে ব্যক্তির জীবনের সত্য ঘটনার উপর। আবার ঐতিহাসিক সত্য ঘটনাও আছে। প্রতিটিই কালজয়ী ও অনুপ্রেরণামূলক।

১। হোটেল রুয়ান্ডা (Hotel Rwanda, ২০০২)

২। লা মিজারেবল (Les Miserable ১৯৯৮)

৩। শিন্ডলার’স লিস্ট (Schindler’s List)

৪। এনিমি অ্যাট দ্যা গেটস (Enimy at the Gates)

৫। ডার্কেস্ট আওয়ারস (Darkest Hours, ২০১৭)

৬। দ্যা কিং’স স্পিস (The King’s Speach)

৭। নুরেমবার্গ ট্রায়াল (Nuremberg Trial)

৮। ফ্রিডম রাইটার্স (Freedom Writers)

৯। নো ম্যানস ল্যান্ড (No Man’s Land)

১০। সামটাইমস ইন এপ্রিল (Sometimes in April, ২০০৫)

আত্মজীবনীমূলক ছবি

আত্মজীবনীমূলক ছবিগুলো সাধারণত সত্য ঘটনা কেন্দ্রীক ছবির মতই ঐতিহাসিক হয় তবে তা ব্যক্তিকেন্দ্রিক। 

১। টুয়েলভ ইয়ারস অফ স্লেভ ( Twelve Years of Slave, ২০১২)

২। দ্যা টু পোপ (The Two Pope, ২০১৯)

৩। দ্যা আয়রন লেডি (The Iron Lady)

৪। গান্ধী (Gandhi)

৫। লিংকন (Linkoln)

৬। মনের মানুষ (Moner Manush, ২০১২)

৭। আই অ্যাম নট দেয়ার (I Am Not There, ২০০৭)

৮। ভাইস (Vice, ২০১৮)

৯। অ্যা বিউটিফুল মাইন্ড (A Beautiful Mind)

১০। মান্তো (Manto, হিন্দি ২০১৭)

সাহিত্য নির্ভর ও উপন্যাস থেকে ছবি

সাহিত্য নির্ভর বা বিখ্যাত ও কালজয়ী উপন্যাসগুলো থেকে যে ছবিগুলো হয় সেগুলোর বৈশিষ্ট্য হচ্ছে উন্নত নির্মাণ, অসাধারণ সব ডায়ালগ, অনিন্দ্য সুন্দর সিনেমাটোগ্রাফি এবং অভিনেতা অভিনেত্রীদের সেরা অভিনয়। খাপ খোলা তলোয়ারের মত এতদিন বইয়ের পাতায় জন্ম নেয়া কল্পনাকে বাস্তবের পর্দায় দেখতে চাইলে দেখতে হবে এই ছবিগুলো।

১। ডেড পোয়েট সোসাইটি (Dead Poet Society)

২। লাভ ইন দ্যা টাইম অফ কলেরা (Love in the Time of Cholera)

৩। লিটল ওমেন (Little Women, ২০১৯)

৪। প্রাইড অ্যান্ড প্রেজুডিস (Pride and Prejudice)

৫। জেন আয়ার (Jane Eyre, ২০১১)

৬। জো জো র্যাাবিট ( Jo Jo Rabit, ২০১৯)

৭। শেকসপিয়ার ইন লাভ (Shakespeare in Love)

৮। অ্যাটোনমেন্ট (Atonement, ২০১১)

৯। চোখের বালি (Chokher Bali)

১০। চারুলতা (Charulata)

কমেডি

এইসময়ে কমেডি দরকার অনেক বেশি। তাই শুধু কমেডি বা কমেডি ড্রামা দেখতে চাইলে এগুলো বেছে নিন।

১। প্রাইভেট লাইফ (Private Life, ২০১৮)

২। সেভেন সাইকোপ্যাথস (Seven Psychopaths, ২০১২)

৩। মন্টি পাইথন’স লাইফ অফ ব্রেইন (Monty Python’s Life of Brain)

৪। আদার পিপল (Other People, ২০১৬)

৫। দ্যা ফান্ডামেন্টালস অফ কেয়ারিং(The Fundamentals of Caring, ২০১৬)

৬। দ্যা বিগ শর্ট (The Big Short, ২০১৫)

৭। দ্যা লন্ড্রোম্যাট (The Londromat, ২০১৯)

৮। লেডি বার্ড (Lady Bird, ২০১৭) 

৯। বুকসমার্ট (Booksmart, ২০২০)

১০। ডন জন (Dohn John, ২০১৩)

সাইকো থ্রিলার ঘরানার ছবি

এই ক্যাটাগরির ছবি এখন অনেক জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। এই ছবিগুলো না দেখলে যে ভাল করে বোঝাই হবে না বাকিগুলো।

১। ইউ ওয়্যার নেভার রিয়েলি হিয়ার (We Were Never Really Here)

২। দ্যা সাইলেন্স অফ দ্যা ল্যাম্বস (The Silence of the Lambs, ১৯৯১)

৩। পারসোনা (Persona)

৪। দ্যা সাইকো (The Psycho)

৫। দ্যা ট্যালেন্টেড মিস্টার রিপ্লে (The Talented Mr. Reply)

৬। জোকার (Joker, ২০১৯)

৭। কার্গো (Cargo, ২০১৭)

৮। ট্যাক্সি ড্রাইভার (Taxi Driver)

৯। শাটার আইল্যান্ড (Shutter Island)

১০। ইনসেপশন (Inception)

ফ্যান্টাসি, সাই-ফাই ও ডেস্টোপিয়া

এই ছবিগুলো না দেখলে আসলে অনেকটা অন্ধকারে থেকে যেতে হবে। পৃথিবী যে কতটা এগিয়ে গেছে বা যেতে পারে এবং আমাদের পরিণতি কেমন হবে তা জানার এর চেয়ে আনন্দময় মাধ্যম আর হতে পারেনা। তাই দেখে ফেলুন এগুলো।

১। এনিহিলেশন (Annihilation)

২। দ্যা ডিসকভারি (The Discovery, ২০১৭)

৩। ডিসট্রিক্ট নাইন (District Nine, ২০০৯)

৪। হাংগার গেমস (Hunger Games)

৫। লবস্টার(Lobstar)

৬। হলো ম্যান (Hollow Man)

৭। ইন্টারস্টেলার (Interstellar)

৮। দ্যা গ্রাভিটি (The Gravity)

১০। টয়স্টোরি ট্রিলোজি (Toy Story Trilogy)

মুক্তিযুদ্ধ কেন্দ্রিক ও বাংলাদেশী ছবি

এই ছবিগুলো হয়তো অনেকে সময়ই পায়নি দেখার এতকাল বা ভাল করে দেখেইনি। এই লকডাউনে অন্যতম সেরা বাংলাদেশী ছবিগুলো দেখে ফেলা যাক। আমাদের দেশের নির্মাতা ও লেখকরাও কিন্তু ভাল গল্প তৈরি করতে জানেন।

১। জীবন থেকে নেয়া

২। আবার তোরা মানুষ হ

৩। গেরিলা

৪। জয়যাত্রা

৫। যুদ্ধ শিশু 

৬। স্বপ্ন জাল

৭। সীমানা পেড়িয়ে

৮। মনপুরা 

৯। আয়নাবাজী

১০। কাঠবিড়ালি

ইরফান খান ও ঋষি কাপুরের ছবি

কেবলই প্রয়াত হলেন উপমহাদেশের এই দুই মহীরুহ অভিনেতা। ইরফান খান ও ঋষি কাপুরের এই ছবিগুলো দেখলে বোঝা যাবে তাঁদের অবদান। 

১। পান সিং তোমার (Pan Singh Tomer)

২। মকবুল (Moqbul)

৩। লাইফ অফ পাই (Life of Pie)

৪। দ্যা নেমসেক (The Namesake)

৫। স্লামডগ মিলেনিয়ার (Slumdog Milenire)

৬। দ্যা লাঞ্চ বক্স (The Lunch Box)

৭। তালভার (Talver)

৮। হিন্দি মিডিয়াম (Hindi Medium)

৯। মূল্ক (Mulk)

১০। ডি ডে (D-Day)

যারা প্রচুর ছবি দেখেন, ছবি বোদ্ধা তাঁদের জন্য হয়তো তালিকাটি খুব সাধারণ হয়ে গেছে। কারণ সবই হয়তো দেখে থাকবেন তারা। তবে এতকাল যারা ভাল চলচিত্র দেখার সময় পাননি কাজের চাপে, এই লকডাউনে তাঁদের কথা চিন্তা করেই মূলত তালিকাটি করা। তাই তালিকায় জনপ্রিয়, কালজয়ী এবং বহুল পুরস্কৃত ছবিগুলোকেই স্থান দেয়া হয়েছে। আশা করছি, এগুলো আরও সেরা ও ভাল ছবি দেখার আগ্রহকে উসকে দেবে শতগুণ । এই ছবিগুলো দেখা মানে পৃথিবীর সেরা গল্পগুলো দেখা ও বোঝা। এগুলো শুধু আমাদের বিনোদনই দেবেনা, খোরাক যোগাবে মনের, চিন্তার। লকডাউন কাটুক ভাল ছবি দেখার আনন্দে। 

 

  

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *