follow us at instagram
Tuesday, August 11, 2020

ঘরে বসেই ইংরেজিতে দক্ষ হোন, খুলুন সম্ভাবনার অনেক পথ

কোন ভাষার দক্ষতা বলতে সেই ভাষা শোনা, বলা, লেখা ও পড়ার সামগ্রীক দক্ষতাকেই বোঝায়।
https://taramonbd.com/wp-content/uploads/2020/07/unnamed.jpg
Image Source: jibikadishari.co.in

মানসম্মত কর্মমূখী শিক্ষা, প্রশিক্ষণ এবং দক্ষতা উন্নয়নই পারে কর্মক্ষেত্রে আমাদের যুগোপযোগী করে তুলতে। বৈশ্বিক মহামারির বর্তমান অস্থির সময়ে অনেকেই নিজেদের দক্ষতাকে বাড়ানোর চিন্তা করছেন। নতুন নতুন বিষয়ে জানতে, কাজ শিখতে আগ্রহী হচ্ছেন। কিন্তু সঠিক দিকনির্দেশনার অভাব বোধ করছেন অধিকাংশই। আগ্রহ অনুযায়ী পছন্দের বিষয়ে বা কাজে নিজেদের প্রশিক্ষিত করে তোলায় সাহায্য করতে যোগাযগের মাধ্যম হিসেবে ভাষা দক্ষতা বা ইংরেজি নিয়ে আলোকপাত করব।

বাংলাদেশে শিক্ষিত জনগোষ্ঠীর অধিকাংশই বাংলা মাধ্যমে পড়াশোনা করেন এবং মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিক স্তরে মানসম্মত শিক্ষার অভাবে ইংরেজি দক্ষতায় পিছিয়ে পড়েন। কিন্তু কর্মক্ষেত্রে বেশির ভাগ ক্ষেত্রে যোগাযোগের মাধ্যম ইংরেজি, আবার বিশ্বায়নের এই যুগে বিশ্ববাজারে নিজেকে যোগ্য করে তুলতে ইংরেজির বিকল্প নেই। আউটসোর্সিং, বিদেশে উচ্চ-শিক্ষা, অন-লাইন শিক্ষা প্লাটফর্ম থেকে কিছু শিখা, ইত্যাদি ক্ষেত্রে ইংরেজি দক্ষতার গুরুত্ব অপরিসীম। বিভিন্ন কর্মমূখী প্রশিক্ষণ নেবার সাথে সাথে যোগাযোগের মাধ্যম হিসেবে ইংরেজি ভাষা দক্ষতার ব্যাপারে সর্বাগ্রে যত্নশীল হওয়া বাঞ্ছনীয়। কেননা এই সাইবার যুগে ভাল ইংরেজি দক্ষতা আপনাকে বিশ্বের সেরা সেরা কর্মমূখী প্রশিক্ষণ উপাদানগুলো সঠিক ভাবে আত্মস্থ করতে এবং ব্যবহার করতে সক্ষম করে তুলবে।

শহরে যারা বড় হয়েছেন ইংরেজিতে তুলনামূলক বেশি সাবলীল হলেও কর্মক্ষেত্রের ফর্মাল ইংরেজিতে ধাতস্ত হতে বেগ পেতে হয় অনেককেই। আর গ্রাম বা মফস্বল থেকে উঠে আসা অনেক তরুণ মেধাবীদের অনেক কষ্টসাধ্য অর্জনও ভেস্তে যেতে দেখা যায় শুধু তাদের ইংরেজি ভাষাদক্ষতার অভাবে। কথোপকথনে বা যোগাযোগে ক্রমাগত ইংরেজি ব্যবহারে ব্যাকরণগত ভুল বা দূর্বল ভাষাদক্ষতায় আমাদের ভাবমূর্তি নষ্ট হয়। যারা নিজেদের এই ভুল গুলো জানেন বা বুঝতে পারেন তারা হীনমন্যতায় ভোগেন। অনেকে চটকদার বিজ্ঞাপনে ভুলে এবং সংক্ষেপে এই ভাষা দক্ষতা অর্জন করতে কিছু কোচিং সেন্টারে যান। এতে অনেকে অনর্গল ভুল্ভাল ইংরেজি আওড়াতে শেখেন ঠিকই কিন্তু এতে লাভের চেয়ে ক্ষতিই বেশি হয়।

একটি বিদেশি ভাষা সঠিকভাবে শেখায় শর্টকাট না খোঁজাই ভাল।  

কোন ভাষার দক্ষতা বলতে সেই ভাষা শোনা, বলা, লেখা ও পড়ার সামগ্রীক দক্ষতাকেই বোঝায়। এই দক্ষতা অর্জনে সচেষ্ট হবার প্রথম পদক্ষেপ হল নিজের অবস্থান বুঝতে পারা, নিজের সীমাবদ্ধতাকে চিন্‌হিত করা। আমাদের অধিকাংশেরই দূর্বলতা ব্যাকরণগত ভুল, অনেকে বৃটিশ বা আমেরিকান উচ্চারনের ইংরেজি শুনে বুঝতে কষ্ট হয়, অনেকে লিখতে গেলে বাক্যগঠনে ভুল করেন, শব্দভান্ডার সমৃদ্ধ না থাকা বা সঠিক উচ্চারন না জানায় ইংরেজিতে কিছু বুঝতে বা বুঝাতে বেগ পেতে হয়। আবার অনেকে ইংরেজদের ব্যবহৃত উপভাষা (বাগধারা), উপমাগুলো সম্পর্কে জানাশোনার অভাবের কারনে ভুল বুঝেও থাকেন। তাই শুরুতেই চেষ্টা করুন নিজের দূর্বলতা খুজে বের করতে। 

নিজের সীমাবদ্ধতা খুজে বের করতে নিজের ইংরেজি ব্যবহারের দিকে নিজেই খেয়াল করুন, নিজের লেখা বা বলার মধ্যে কি কি ভুল করছেন খুজে দেখুন। অনলাইন (যেমনঃ British Council) বা আইইএল্টিএসের মডেল টেস্ট (Cambridge সিরিজ) দিয়ে ও বুঝতে পারেন কোথায় উন্নতি করতে হবে, অভিজ্ঞ কারো সাহায্যও নিতে পারেন। 

শুরু করতে পারেন ইংরেজি ব্যাকরণ দিয়ে। নিয়মগুলো মুখস্ত না করে ভাষায় সেগুলোর ব্যবহারগত দিকগুলো খেয়াল করুন। রেমন্ড মারফি, অক্সফোর্ড, ক্যাম্ব্রীজ এসব প্রকাশনার বেশ কিছু বই আছে ব্যাকরণ এর। যে কোন একটি যোগাড় করুন বা অনলাইন থেকে ডাউনলোড করে অনুশীলন শুরু করুন। (John Eastwood – Oxford Practice Grammar, Raymond Murphy – English Grammar In Use) বহুল প্রচলিত এই বইগুলো অনলাইনেই পাবেন বা কিনেও নিতে পারেন কাগজে পড়া বা অনুশীলনের জন্য। ইংরেজি সিনেমা দেখুন। শুনে পুরোপুরি বুঝতে না পারলে সাবটাইটেল দিয়ে দেখুন। কিছুদিন পরপর খেয়াল করুন সাবটাইটেল ছাড়া বুঝার উন্নতি কেমন হচ্ছে। ইংরেজি গল্পের বই পড়ুন। লাইব্রেরী বা পুরোনো বইয়ের দোকান থেকে সংগ্রহ করুন বা অনলাইনে পড়ুন। আপনার ভাষা দক্ষতা যদি প্রাথমিক স্তরের হয় তাহলে সহজ ইংরেজির বই খুজে নিন। Great Stories in Easy English – এই সিরিজে অনেক বিখ্যাত সাহিত্য সহজ ভাষায় লেখা। Harry Potter, The Vinci Code এর মত হালের বিখ্যাত বইও পড়তে পারেন। বলা বাহুল্য – কয়েকটি বই শেষ করতে পারলে আপনার ইংরেজি পড়ার দক্ষতাতো বাড়বেই আর বিখ্যাত সব লেখার সাথে পরিচিত হয়ে তার স্বাদ নেয়া উপরি পাওনা। এছাড়া ইংরেজি দৈনিক, অনলাইন পত্রিকা পড়তে পারেন। এগুলোর মোবাইল এপ ভার্সন আছে যা থেকে প্রতিদিনের খবর তো পাবেনই সাথে বাড়তে থাকবে আপনার ইংরেজি দক্ষতা। সিনেমা, বই, পত্রিকা থেকে শোনা বা পড়া নতুন নতুন শব্দগুলো নোট রাখতে পারেন অর্থ এবং বাক্যে ব্যবহারিক উদাহরন সহ। নিজের করা অনুশীলনগুলোতে সপ্তাহান্তে আবার চোখ বুলান। ইংরেজিতে কথা বলার জড়তা কাটাতে এবং ভুল শুধরাতে ছোট ছোট বিষয়ে প্রতিদিন ২-৫ মিনিট নিজে (জড়তা কাটাতে আয়নার সামনে) কথা বলুন এবং রেকর্ড করুন। নিজেই সেসব থেকে ভুল বের করুন।

এভাবে অনুশীলন করে আপনার দক্ষতার উন্নতি বুঝলে অনলাইনে কোর্স করতে পারেন। Coursera, EdX, Udemy, Youtube, 10-minute School – এসব প্লাটফর্মে ইংরেজির বিভিন্ন লেভেলের কোর্স আছে, পছন্দসই একটি কোর্স দিয়ে শুরু করুন। এছাড়াও অনলাইনে অনেক প্লাটফর্ম আছে ইংরেজি শিখার। তবে শুধু কোর্স করে খুব বেশি সুফল আসে না নিয়মিত চর্চা না থাকলে। তাই সঠিক ব্যাকরণে লেখা, বলা, শোনা এবং পড়ার নিয়মিত চর্চা অব্যাহত রাখুন পাশাপাশি অনলাইনে কোর্স করে দক্ষতাকে ঝালিয়ে নিন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *