follow us at instagram
Friday, December 04, 2020

যোগাযোগের মাধ্যম হিসেবে ইংরেজিতে দক্ষতা তৈরি করবেন যেভাবে

বর্তমান সময়ে প্রায় প্রতিটি ক্ষেত্রেই ভাষা হিসেবে ইংরেজির গুরুত্ব অনেক।
https://taramonbd.com/wp-content/uploads/2020/07/unnamed.jpg

বর্তমান বিশ্বে আন্তর্জাতিক যোগাযোগের মাধ্যম হিসেবে ইংরেজি ভাষার অবস্থান প্রথমে। দি ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরাম এর তথ্য অনুসারে বিশ্বজুড়ে প্রায় ১.৫ বিলিয়ন মানুষ ইংরেজি ভাষায় কথা বলে যার মধ্যে প্রায় ৩৮ কোটি মানুষের ফার্স্ট ল্যাঙ্গুয়েজ  ইংরেজি । দেশের অভ্যন্তরে ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে চাকরির বাজারে, আন্তর্জাতিক ব্যবসার ক্ষেত্রে, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এমনকি ইন্টারনেটের মাধ্যমে খুব দ্রুত তথ্য সংগ্রহের ক্ষেত্রেও ইংরেজিতে দক্ষতা প্রয়োজন।  

ভাষা হিসেবে ইংরেজির গুরুত্ব

একাডেমিক শিক্ষার শুরু থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায় পর্যন্ত আমাদের দেশের প্রত্যেক  শিক্ষার্থী বাধ্যতামূলক বিষয় হিসেবে ইংরেজি অধ্যয়ন করে থাকেন। এমন কি গ্রাজুয়েট এবং মাস্টার্স এর ক্ষেত্রেও পড়াশুনার মাধ্যম হিসেবে ইংরেজি  ভাষার উপস্থিতি লক্ষণীয়। 

কিন্তু আশ্চর্য হলেও সত্য যে আমাদের অধিকাংশ শিক্ষার্থীরা ইংরেজি ব্যাকরণের নিয়ম মুখস্থ করলেও শুনে ভাষা টি বুঝতে পারা, ঐ ভাষায় কথা বলা, লেখা এবং  পড়ে বুঝতে পারা এই চারটি বিষয়ে দক্ষতা অর্জন করতে ব্যর্থ হচ্ছেন। যা তাদের মধ্যে ইংরেজি ভীতির সৃষ্টি করছে ফলে  উচ্চশিক্ষা, গবেষণা, ব্যবসা-বাণিজ্য, দেশে ও এর বাহিরে কর্মসংস্থান ইত্যাদি প্রতিটি সেক্টরে তারা পিছিয়ে পড়ছেন। বর্তমান সময়ে প্রায় প্রতিটি ক্ষেত্রেই ভাষা হিসেবে ইংরেজির গুরুত্ব অনেক।

বিশ্বের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশুনার সুযোগ ও কর্মক্ষেত্রে সুযোগ বৃদ্ধি

বিদেশে পড়াশোনা করার স্বপ্ন দেখেন অনেকেই। এক্ষেত্রে বিশ্বের নামকরা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে চাইলে আপনাকে অবশ্যই ইংরাজি ভাষা রপ্ত করতে হবে। তাছাড়া আজকাল নিজের মাতৃভাষার পাশাপাশি যথাযথ ভাবে ইংরেজিতে কথা বলতে, লিখতে ও বুঝতে পারার দক্ষতা কর্মক্ষেত্রে একাধিক কাজের সুযোগ সৃষ্টিতে সহায়ক ভূমিকা রাখছে।   

ফ্রিল্যান্সিং এ ইংরেজির গুরুত্ব

ফ্রিল্যান্সিং এর ক্ষেত্রে অনলাইন প্ল্যাটফর্মগুলি যেমন আপওয়ার্ক, ফ্রিল্যান্সার, ফিভার ইত্যাদিতে ক্লায়েন্টগুলি সাধারণত সারা বিশ্ব থেকে আসে এ কারণে বিভিন্ন প্রজেক্টে কাজের সুযোগ পেতে  যোগাযোগের জন্য  ইংরেজি ভাষাতে দক্ষতা প্রয়োজন হয়ে থাকে। 

আন্তর্জাতিক ব্যবসায়িক ভাষা হিসেবে ইংরেজি 

ইংরেজি একটি  আন্তর্জাতিক ও বহুল প্রচলিত ব্যবসায়িক ভাষা হওয়ায় বিশ্বব্যাপী কর্মী হিসেবে কাজের সুযোগ পেতে ইংরেজি ভাষায় যোগাযোগের দক্ষতা থাকা ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ।

 ভ্রমণে ইংরাজীর গুরুত্ব 

বিশ্বজুড়ে ব্যবহৃত অন্যতম ভাষা গুলির একটি  ইংরেজি হওয়ায় আপনি যদি ইংরেজিতে পারদর্শী হন তাহলে বিশ্বের যে কোন স্থান ভ্রমনের ক্ষেত্রে যেমন যাত্রার সময়সূচি, কোন স্থানের ঠিকানা, রাস্তার বিভিন্ন সংকেত ইত্যাদি বিভিন্ন জরুরী তথ্য বোঝা ও অন্য ভাষার মানুষের সাথে যোগাযোগের ক্ষেত্রে সমস্যার সম্মুখীন হবেন না। 

ইন্টারনেটের শীর্ষ ভাষা হিসেবে ইংরেজি 

অনলাইনে বিদ্যমান বেশিরভাগ তথ্য, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম গুলো যেমন ফেসবুক, ইউটিউব ইত্যাদি, টিভি চ্যানেল ও সংবাদপত্র যেমন বিবিসি, সিএনএন, আলজাজিরা ইত্যাদি এমন কি বিভিন্ন ম্যাগাজিন  এবং রেডিও চ্যানেল সহ বিশ্বমানের বিভিন্ন সাহিত্যের বইয়ের অনুবাদের ভাষা ইংরেজি। একারণে মাতৃভাষার পাশাপাশি ইংরেজিতে দক্ষতা এসকল ক্ষেত্রে আপনাকে এগিয়ে রাখবে।

ইংরেজি ভাষায় দক্ষতা অর্জনের কিছু মাধ্যম 

অ্যাপ ব্যাবহারের মাধ্যমে ইংরেজি চর্চা

FluentU 

FluentU অ্যাপটি ব্যবহার করে বিভিন্ন সিনেমার ট্রেইলার, মিউজিক ভিডিও, অণুপ্রেরণাদায়ক কথাবার্তা এবং অনেক ধরণের কনটেন্ট, ফ্ল্যাশকার্ড, অনুশীলনী, ভোকাবুলারি ইত্যাদির সাহায্যে খুব সহজেই ইংরেজি চর্চা করতে পারবেন।

EnglishLive 

এখানে ইংরেজির উপর ১৬টি লেভেলের একটি সাধারণ ইংরেজি কোর্স রয়েছে যা প্রাথমিক পর্যায়ের ইংরেজি শিখতে আগ্রহীদের জন্য উপযোগী। এছাড়াও পেশাদার ইংরেজি, ভ্রমণে ব্যাবহারিত ইংরেজি, চাকরির ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় ইংরেজি এবং প্রতিযোগিতামূলক বিভিন্ন পরীক্ষা ও কর্মক্ষেত্রের (ব্যাংকিং, চিকিৎসাক্ষেত্র, আইনসংক্রান্তক্ষেত্র, পর্যটনক্ষেত্র, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিক্ষেত্র ইত্যাদি)  জন্য ও ইংরেজির ওপর নির্দিষ্ট কিছু কোর্স রয়েছে যা ইংরেজি শেখার জন্য বেশ কার্যকর।

Duolingo

বিভিন্ন লেভেল আনলকের মাধ্যমে ভার্চুয়াল কয়েন অর্জন , লিডার বোর্ডে অন্যান্য শিক্ষার্থীদের মধ্যে স্থান করে নেওয়া ইত্যাদি আকর্ষণীয় ভাবে সাজানো অ্যাপটি ব্যবহারের মাধ্যমে খুব সহজেই নতুন নতুন ভোকাবুলারি ও গ্রামার  শিখতে পারবেন। 

Quiz your English

Cambridge Assessment English কতৃক ডিজাইনকৃত অ্যাপটি বিভিন্ন প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারীদের জন্য খুবই উপযোগী ।

6,000 Words

সহজেই ছবির মাধ্যমে বিভিন্ন বিষয়ে ভোকাবুলারি শেখার জন্য অ্যাপটি বেশ জনপ্রিয়।

এছাড়াও ইংরেজি ভাষা পড়া, সঠিক নিয়মে লেখা ও বলার ক্ষেত্রে Beelingu, HelloTalk, Grammarly, BBC Learning English, The British Council ইত্যাদি অ্যাপগুলো উপকারী ভূমিকা রাখতে পারে। 

পডকাস্ট 

ইংরেজি ভাষার পডকাস্ট যেমন 6-Minute English from the BBC, The English We Speak, Voice of America, English Across the Pond ইত্যাদি যে কোন একটি পছন্দের চ্যানেল নির্বাচন করে  যাত্রাপথে শুনতে পারেন ।

ইউটিউব চ্যানেলের মাধ্যমে ইংরেজি চর্চা

বিভিন্ন ইউটিউব চ্যানেলের মাধ্যমে একই সাথে ইংরেজি লিসেনিং, রিডিং, স্পিকিং এবং অন্যান্য স্কিল চর্চা করা সম্ভব যেমন 

Boston English Centre

আমেরিকান ইংলিশ শেখার ক্ষেত্রে বিশেষ করে  ইংরেজি শোনা ও বলার দক্ষতা অর্জনের জন্য ইউটিউবে বিদ্যমান এই কোর্সটি যথেষ্ট কার্যকর।

Learn English with Steve Ford

স্টিভ ফোর্ড একজন স্বনামধন্য ইংরেজি শিক্ষক যার ইউটিউব চ্যানেলে ইংরেজি ভাষায় দক্ষতা অর্জনের ক্ষেত্রে বিশেষ পরামর্শ এবং নিয়মাবলী, প্রতিযোগিতামূলক ইংরেজি পরীক্ষার প্রস্তুতি, চাকরির ইন্টারভিউ, অফিস ও ব্যবসা-সংক্রান্ত ইংরেজি ভিডিওগুলো ইংরেজি শেখার একটি কার্যকর মাধ্যম। 

এছাড়াও বিভিন্ন ইউটিউব চ্যানেল যেমন Speak English With Mr. Duncan, BBC Learning English, Jennifer ESL, EnglishClass101.com, VOA Learning English, Rachel’s English ইত্যাদির মাধ্যমে নিজের সুবিধা ও সময় মাফিক ইংরেজি ভাষার চর্চা সম্ভব। 

ইংরেজি শেখার অনলাইন কোর্স

Coursera

Coursera তে মাধ্যমিক থেকে অ্যাডভান্সড লেভেলের বিভিন্ন কোর্স বিদ্যমান যেমন  

Learn English: Intermediate Grammar, Learn English: Advanced Grammar and Punctuation, Learn English: Advanced Academic Speaking and Listening, English for Research Publication Purposes, The Pronunciation of American English, Academic English: Writing ইত্যাদি । এ সকল কোর্স গুলোর সুবিধা হল যদিও এগুলো নির্দিষ্ট সময়সূচী মেনে চলে, তবুও আপনি আপনার সুবিধামত পাঠগুলো দেখতে এবং অ্যাসাইনমেন্টগুলো শেষ করতে পারবেন। পাশাপাশি একটি কোর্স সম্পূর্ণ করার পর সার্টিফিকেটও অর্জন করবেন।

এছাড়াও Alison, edX, Udemy ইত্যাদি অনলাইন মাধ্যম গুলোও বিভিন্ন সার্টিফাইড কোর্স পরিচালনা করে থাকে। 

ইংলিশ অ্যাক্সেস মাইক্রোস্কলারশিপ প্রোগ্রাম

ইংলিশ অ্যাক্সেস মাইক্রোস্কলারশিপ প্রোগ্রামটি ২০০৪ সাল থেকে প্রথম শুরু হয়। এখন পর্যন্ত ৮৫টিরও বেশি দেশের ১৪-১৮ বছর বয়সী মেধাবী সুবিধাবঞ্চিত শিক্ষার্থী এ প্রগ্রামটিতে অংশ নিয়েছে। প্রোগ্রামটি অংশগ্রহণকারীদের ইংরেজি ভাষায় দক্ষতা অর্জনের সুযোগ দেয় যা পরবর্তীতে ভালো চাকরি এবং শিক্ষার সুযোগ সৃষ্টি করে।

প্রায় পঁচিশ থেকে ত্রিশ কোটি মানুষের মুখের ভাষা বাংলা হলেও বর্তমানে দেশের ভেতরে ও আন্তর্জাতিক অঙ্গনে শিক্ষাক্ষেত্র থেকে শুরু করে কর্মক্ষেত্র সকল ক্ষেত্রেই ইংরেজি ভাষার শক্তিশালী অবস্থান লক্ষনীয়। তাই নিজেকে যুগের সাথে এগিয়ে রাখতে মাতৃভাষার পাশাপাশি ইংরেজি ভাষায় পারদর্শিতা আবশ্যক। 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *